ফ্যাশনলাইফ-স্টাইল

শীতে মহিলাদের ফ্যাশন

শীতে মহিলাদের ফ্যাশন এমন হওয়া উচিত যা সময়োপযোগীও হবে এবং সাথে সাথে দেখতেও হবে অনন্য যাতে একজন মহিলার ব্যক্তিত্ব ভালোভাবে ফুটে উঠে এবং পোশাক যাতে উষ্ণতাও দিতে পারে।
প্রত্তেকের আলাদা আলাদা পছন্দ রয়েছে, একেক মানুষ একেক ধরণের পোশাকে অভ্যস্ত। তাই শীতেও প্রত্যেকে পছন্দমত পোশাককেই বানিয়ে ফেলতে পারেন আপনার ফ্যাশন। রং থেকে শুরু করে পোশাকের ধরণ, সবকিছুতেই রয়েছে ব্যক্তিগত পছন্দের প্রাধান্য।
তবে যে ধরণের পোশাক বর্তমান সময়ে সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং সর্বাধিক ব্যবহার্য, সেই পোশাকগুলোর বিবরন দিতেই এই প্রতিবেদন।

স্কার্ফঃ

স্কার্ফঃ শীতে চুলকে ঠাণ্ডা ও ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করতে পরতে পারেন স্কার্ফ। যারা টুপি বা হ্যাট পরতে চান না বা পছন্দ করেন না, তারা সহজেই এটি বেছে নিতে পারেন। এটি অনেকের জন্যই একটি পছন্দের শীতকালীন পোশাক হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং এটি একটি স্টাইলিশ ফ্যাশান উপকরন হিসেবেও অনেকের কাহে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ।

গাঢ় ডেনিমঃ

গাঢ় ডেনিমঃ এগুলো বিভিন্ন ধরণের হয়ে থকে। তাই ফ্যাশন প্রেমীদের জন্য এটি একটি খুবই ভাল এবং উপকারী পোশাক। এটি বিভিন্নভাবে পরিধান করা যেতে পারে। তাই যে যেভাবে পড়তে পছন্দ করে সে তার পছন্দমত পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে পরে নিতে পারে এই প্যান্টগুলো। মজার বিষয় হল এই প্যান্টগুলো পরার সময় কখনো এই চিন্তা করতে হয় না যে কোন কাপড়ের সঙ্গে মিলবে বা কোনটার সঙ্গে মিলবে না। কারণ, এই জিনসগুলো সব ধরণের কাপড়ের সঙ্গেই পড়া যায়। তাই যেকোনো ফ্যাশন সচেতন মানুষই সহজেই পরতে পারেন এই পোশাক।

ল্যাভেন্ডার রংঃ

ল্যাভেন্ডার রংঃ এই রং শীতে ব্যবহারের জন্য খুবই উপযোগী এবং সুন্দর একটি রং। খুবই স্নিগ্ধ এবং যেকোনো পোশাকের সঙ্গেই সহজেই মিলিয়ে পরে ফেলতে পারেন এই রঙের জ্যাকেট বা হুডি।
সুতোর বুনন করা জামাঃ শীতকালের খূব পরিচিত পোশাক হল সুতোর বুনন করা গরম কাপড়। এইসব গরম জামা যেমন শীতকালে পরার উপযোগী করে বানানো, তেমনি এগূলো পরলে দেখতেও ভালো লাগে। তাই ফ্যাশন সচেতন যে কেউ এই ধরণের কাপড় পরতে পারেন শীতকালে আরামের জন্য।ভারী বা পাতলা যেকোনো ধরণের সুয়েটার এই ধরণের হয়ে থাকে। এছাড়াও ফূল হাতা, হাফ হাতা অনেক ধরণের সুতোয় বুনো কাপড় রয়েছে শীতকালে পরার জন্য। এই কাপড়গুলো যেমন পরতে আরাম হয়, ঠিক তেমনি দেখতেও রুচিসম্মত হয়।

ঢিলেঢালা সুয়েটারঃ

ঢিলেঢালা সুয়েটারঃ বর্তমান সময়ে একটি জনপ্রিয় স্টাইল হল ঢীলে সুয়েটার। এই ধরণের সুয়েটার বা টি শার্ট অল্প বয়সীদের মাঝে খুবই পছন্দের ডিজাইন। আর শীতকাল এই ধরনের কাপড় পরিধানের জন্য একদম উপযুক্ত সময়।
অ্যানিম্যাল

প্রিন্টঃ শীতকালে মহিলাদের একটি জনপ্রিয়, এবং বহুল ব্যবহৃত পোশাক হল অ্যানিম্যাল প্রিন্টযুক্ত পোশাক। এটি খুবই রুচিসম্মত এবং আকর্ষণীয় পোশাক হিসেবে পরিচিত। তাই শীতকালে অ্যানিম্যাল প্রিন্ট যুক্ত পোশাকও পরিধান করতে পারেন যেকোনো ফ্যাশন সচেতন নারী।

বূটঃ শীতে মহিলাদের একটি জনপ্রিয় জিনিস হচ্ছে বুট। পশ্চিমা বিশ্বে এটি বহুলভাবে ব্যবহৃত হয়। তবে আমাদের দেশে বুট পরার মতো শীত সাধারণত আসে না। তবে ফ্যাশন সচেতনদের জন্য এটি খুবই প্রিয় একটি পরিধেয়।
শার্ট জ্যাকেটঃ যেমন আরামদায়ক, তেমনি ফ্যাশনএবল, শার্ট জ্যাকেট বর্তমান মহিলাদের অতি পছন্দের পোশাক। ফরমাল বা ইনফরমাল যেকোনো জায়গায় শীতকালে পরা যেতে পারে এই পোশাক। এতে যেমন আপনি রক্ষা পাবেন শীতের তীব্রতা থেকে পাশাপাশি দেখতেও এগুলো বেশ জাঁকজমকপূর্ণ।
ভেস্টঃ শীতকালের আরেকটি বহুল ব্যবহৃত পোশাক হল ভেস্ট। হালকা শীতে অন্য পোশাকের উপর পরা যেতে পারে এগুলো। আবার বেশি শীতেও সুয়েটার বা টি শার্ট এর উপর পরতে পারেন ভেস্ট। ফ্যাশন সচেতন নারীদের জন্য ভেস্ট হল খুবই স্মার্ট একটি আউটফিট। তাই যে কেউই পরতে পারেন এটি।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button